পথের পাঁচালী – ২


ওই আস্তাবলের মাথায় যে আকাশটা, ওরই ওপারে পুবদিকে বহুদুরে তাহাদের নিশ্চিন্দিপুর।

আজ কতোদিন সে নিশ্চিন্দিপুর দেখে নাই – তি-ন বতসর! কতকাল!

সে জানে নিশ্চিন্দিপুর তাহাকে দিনে-রাতে সবসময় ডাকে, শাঁখারীপুকুর ডাক দেয়, বাঁশবনটা ডাক দেয়, সোনাডাঙ্গার মাঠ ডাক দেয়, কদমতলার সাহেবের ঘাট ডাক দেয়, দেবী বিশালাক্ষী ডাক দেন।

………

এতদিনে তাহাদের সেখানে ইছামতীতে বর্ষার ঢল নামিয়াছে। ঘাটের পথে শিমুলতলায় জল উঠিয়াছে। ঝোপে ঝোপে নাটাকাঁটা, বনকলমির ফুল ধরিয়াছে। বন অপরাজিতার নীল ফুলে বনের মাথা ছাওয়া।

…………………

বনের ধারে সে অপূর্ব মায়াময় বৈকালগুলি মিছামিছিই নামিবে চিরদিন।

…………………

(বিভূতিভূষণ বন্দোপাধ্যায়ের “পথের পাঁচালী” হতে নেওয়া)

Tagged

2 thoughts on “পথের পাঁচালী – ২

  1. Rossi says:

    Isn’t the theme similar to the greatest sonnet ‘Kopotakhkho Nod’ by Michael M Dutta?

  2. bilash says:

    To some extent, yes. But I find this one far more passionate than Kopotakkho Nod.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: